গৌরনদীতে মিথ্যে মামলা দিয়ে প্রতিপক্ষকে হয়রানির অভিযোগ || আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য

খোকন হাওলাদার, বার্তা ডেস্কঃ-
 বরিশালের গৌরনদী উপজেলার পিঙ্গলাকাঠী গ্রামে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে প্রতিপক্ষরা বাড়ির জমি দখলের চেষ্টা করে। জমি দখলে বাধা দিলে প্রতিপক্ষ মোঃ সেলিম মোল্লার স্ত্রী সানজিদা বেগম, পুত্র আল আমিন মোল্লা, এমরান মোল্লা ও তার লোকজন হামলা চালিয়ে গুরুতর জখম করে মোঃ হারুন অর রশিদ মোল্লার বড় কন্যা সুলতানা বেগমকে (৩০)। গুরুতর অবস্থায় সুলতানাকে গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। হামালা চালিয়ে প্রতিপক্ষরা আদালতে মামলা দিয়ে মোঃ হারুন অর রশিদ মোল্লার পুত্র, কন্যা ও মেয়ে জামাতাদের হয়রানি করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
এলাকাবাসী ও পুলিশ সুত্রে জানাগেছে, উপজেলার নলচিড়া ইউনিয়নের পিঙ্গলাকাঠী গ্রামের মোঃ হারুন অর রশিদ মোল্লার সাথে একই বাড়ির মালদ্বীপ প্রবাসী মোঃ সেলিম মোল্লার সাথে র্দীঘ দিন যাবত বসত বাড়ির জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এ নিয়ে একাধিকবার উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ ছাড়া উভয় পক্ষের একাধিক দেওয়ানি ও ফৌদারী মামলা বিচারাধীন রয়েছে। মোঃ হারুন অর রশিদ মোল্লার পুত্র মোঃ মাসুদ রানা অভিযোগ করেন, তাদের বসত বাড়ির বিরোধীয় জমিতে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে তার বাবা মোঃ হারুন অর রশিদ মোল্লা গং বাদি হয়ে বরিশাল সহকারী জজ কোর্টে মামলা দায়ের করেন। আদালতের বিচারক গত ৮ এপ্রিল উভয় পক্ষকে স্ব-স্ব দখলে অনুযায়ী স্থিতিবস্থা আদেশ প্রদান করেন। আদালতের স্থিতিবস্থা আদেশ অমান্য করে গত ৩০ জুলাই প্রতিপক্ষ মোঃ সেলিম মোল্লার স্ত্রী সানজিদা বেগম, পুত্র আল আমিন মোল্লা, এমরান মোল্লা ও তার ভাড়াটিয়া লোকজন নিয়ে বিরোধীয় জমিতে হাঁস পালনের জন্য ঘর উত্তোলন চেষ্টা করেন। এ সময় মোঃ হারুন অর রশিদ মোল্লার বড় কন্যা সুলতানা বেগম বাঁধা দিলে তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে জখম করে। পরবর্তীতে সুলতানা বেগমের লোকজন পাল্টা হামলা চালিয়ে সানজিদা বেগমকে আহত করে। উভয় পক্ষ গত ৩১ জুলাই বরিশাল আদালতে মামলা দায়ের করেন।
মোঃ মাসুদ রানা অভিযোগ আরো বলেন, ‘প্রতিপক্ষরা আমাদের উপর হামলা চালিয়েই ক্ষান্ হয়নি। মিথ্যে মামলা দিয়ে আবার হয়রানি করছে।’ অভিযোগের ব্যাপারে সানজিদা বেগমের বক্তব্য নেয়ার জন্য বহুবার যোযোগ করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

No comments

Powered by Blogger.