গৌরনদীতে ছাত্রলীগের দুই পক্ষে সংঘর্ষ ভাঙচুর : আহত ১৫

খোকন হাওলাদার || 
বরিশালের গৌরনদীতে নেশা করতে বাধা দেয়াকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে গত শনিবার সকালে হামলা পাল্টা হামলা সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় তিনটি বসত ঘর ভাঙচুরসহ উভয় পক্ষের কমপক্ষে ১৫জন আহত হয়েছে। গুরুতরভাবে আহত ৭ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় পাল্টাপাল্টি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ধারাল অস্ত্র উদ্দঅর করেছে। বসতঘরে হামলা ভাঙচুরের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেছে এলাকাবাসী।

প্রত্যক্ষদর্শী, স্থানীয় লোকজন ও আহতরা জানান, গত শুক্রবার সকালে সরকারি গৌরনদী কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ক্রীড়া সম্পাদক ও কলেজ ছাত্রলীগের প্রভাবশালী সদস্য আরিফ মিয়া(২৬)র সমর্থক ছাত্রলীগ কর্মি অন্তর(১৫)সহ ৭/৮ জন জুনিয়র ছাত্রলীগ কর্মি পৌর এলাকার বানিয়াশুরী মহল্লার তালুকদার বাড়ির মসজিদের সামনে আড্ডা দিচ্ছিল। এ সময় ছাত্রলীগ কর্মি রবি তালুকদার(২৩)র ভাতিজা সাব্বির তালুকদার(১৫) ঘটনাস্থলে পৌছে মসজিদের সামনে এ ধরনের আচরন করতে নিষেধ করেন। এ নিয়ে অন্তরের সঙ্গে সাব্বিরের বার্ ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এর জের ধরে গতকাল শনিবার সকাল ১১টার দিকে সাব্বিরের সমর্থকরা বাদামতলা বাজারে আরিফ মিয়ার তিন সমর্থককে মারধর করে। এর জের ধরে সাড়ে ১১টার দিকে আরিফের সমর্থকরা একই স্থানে(বাদামতলা) রবি তালুকদারকে মারধর করে। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় উত্তেজনা দেখা দেয়। দুপুর ১২টার দিকে উভয় পক্ষের সমর্থকরা লাঠিসোটা ও ধারাল অস্ত্র নিয়ে পাল্টাপাল্টি হামলা চালালে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ শুরু হয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন। এতে উভয় পক্ষের ১৫জন আহত ও আরিফ সমর্থক অন্তর সরদার, আকতার আলী সরদার ও আহাদ সরদারের বসত ঘর ভাঙচুর করা হয়।
গুরুতর আহতরা হলেন, আরিফের সমর্থক অন্তর সরদার(১৪), হৃদয় সরদার (১৯) তাদের বাবা দেলোয়ার সরদার(৪৫) রাব্বি সরদার (১৬), আহাদ সরদার (১৫) আহাদের প্রতিবন্ধী বোন খুশি খানম(১২) । রবি তালুকদার(২৩)তার সমর্থক ছাত্রলীগ কর্মি খোরশেদ হাওলাদার(২৫) হীরন শরীফ (১৭) নওশাদ হাওলাদার(১৫), নাঈম সরদার(১৫), সাব্বির তালুকদার(১৫), অপু তালুকদার(১৫)। খোরশেদ হাওলাদারকে বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ, রাব্বি সরদার (১৬), আহাদ সরদার (১৫) আহাদের প্রতিবন্ধী বোন খুশি খানম(১২), হীরন শরীফ, নাঈম সরদারকে গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

ছাত্রলীগ নেতা রবি তালুকদার অভিযোগ করে বলেন, গতকাল শনিবার দুপুর সাড়ে ১১টার দিকে আমি বাড়ি থেকে গৌরনদী বাসষ্টাÐ যাওয়ার পথে বাদামতলা পৌছলে আরিফের নেতৃতে একদল সন্ত্রাসী আমার উপর হামলা চালায়। এসময় আমার সমর্থকরা উদ্ধার করে আমাকে হাসপাতালে নেওয়ার চেষ্টা করলে তাদের ১০ জনকে পিটিয়ে আহত করেছে। এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ছাত্রলীগ নেতা আরিফ হোসেন পাল্টা অভিযোগ করে বলেন, রবি তালুকদারের নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে আমার সমর্থকদের পিটিয়ে জখম করেছে এবং আমার তিন সমর্থকের বসতঘর ভাঙচুর করেছে। ঘটনার পর পর বসতঘরে হামলা ভাঙচুরের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেছে এলাকাবাসী। গৌরনদী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মুনিরুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। এসময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকৈ পরিত্যক্ত অবস্থায় ২টি রামদা উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

No comments

Powered by Blogger.