আইসল্যান্ডে আটকা পড়ল আর্জেন্টিনা!

স্পোর্টস ডেস্কঃ 
আইসল্যান্ড দলটি আর্জেন্টিনার কাছে একেবারেই অপরিচিত। বিশ্বকাপে নবাগত এই দলটির বিপক্ষে এর আগে কখনোই মুখোমুখি হয়নি তারা। প্রথম দেখায় মেসির দলটিকে ভালোই ভুগিয়েছে ইউরোপের দলটি। শুধু তাই নয়, একেবারে রুখেই দিয়েছে মেসির আর্জেন্টিনাকে। দলটির সবচেয়ে বড় তারকা মেসির পেনাল্টি মিস, আর নড়বড়ে রক্ষণভাগের কারণে ১-১ গোলের সমতায় শেষ হয়েছে ম্যাচ।

আজ শনিবার মস্কোয় অনুষ্ঠিত ম্যাচের অবশ্য শুরু থেকেই বেশ আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলেছিল আর্জেন্টিনা। ফলও পেয়েছিল তারা। ১৯ মিনিটে আর্জেন্টিনা এগিয়ে যায় সার্জিও আগুয়েরোর চমৎকার গোলে।  ডি-বক্সের মধ্যে বল পেয়ে অসাধারণ শটে বল লক্ষ্যভেদ করেন তিনি। উল্লাসে মাতিয়ে তোলেন পুরো আর্জেন্টাইন শিবিরকে।

মেসির দলটির এই উচ্ছ্বাস বেশিক্ষণ থাকেনি। ২৩ মিনিটে গোলটি সমতা নিয়ে আসে আইসল্যান্ড। পাল্টা আক্রমণ থেকে বল নিয়ে আর্জেন্টিনার সীমানায় ডুকে পড়েন দুই আইসল্যান্ড ফরোয়ার্ড। সুযোগে আলফ্রেড ফিনবগাসন আলতো শটে জালে জড়ান বল। রক্ষণভাগের ভুলেই আর্জেন্টিনা এই গোলটি হজম করে।

এর আগে চতুর্থ মিনিটেই আর্জেন্টিনা একটি সহজ সুযোগ হাতছাড়া করে। মেসির ফ্রি-কিক থেকে নিকোলাস ওটামেন্ডি পা ছোঁয়ালেই গোল হতো তিনি তা পারেননি।

ঠিক চার মিনিট পর মেসির ফ্রি-কিক থেকে নিকোলাস টাগলাফিকোর হেড, আবার আর্জেন্টিনার ব্যর্থ প্রচেষ্টা।

তবে দশম মিনিটে আইসল্যান্ডের হয়ে পাল্ট আক্রমণ থেকে গোলের সুযোগ হাতছাড়া করেন  বিরকির বিয়ার্নসন।

দ্বিতীয়ার্ধে আর্জেন্টিনার জন্য সবচেয়ে বড় হতাশা ছিল মেসির পেনাল্টি মিস। ম্যাচের ৬৩ মিনিটে মেসির চমৎকার শট রুখে দেন আইসল্যান্ড গোলরক্ষক। স্তব্ধ হয়ে যায় পুরো আর্জেন্টাইন শিবির, এ কী করলেন মেসি!

এর পর আর্জেন্টিনা বেশ কয়েকটি সুযোগ পেয়েছিল ঠিক, কাজে লাগাতে পারেনি একটিও। তাই প্রথম ম্যাচেই পয়েন্ট ভাগাভাগি করে মাঠ ছাড়তে হয় দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের।

তবে আর্জেন্টিনার রক্ষণভাগ যে অনেকটাই নড়বড়ে, প্রথম ম্যাচেই তা ভালোভাবে ফুটে উঠেছে। প্রথমার্ধে আইসল্যান্ডের কয়েকটি আক্রমণ সামলাতে খুবই কষ্ট করতে হয়েছে আর্জেন্টিনার ডিফেন্ডারদের।

No comments

Powered by Blogger.