বিনা অপারেশন ক্যান্সার নিরাময়ে ‘ভেরিয়ান এজ রেডিও-সার্জারি’



  শাহ মুহাঃ সুমন রশিদ,স্বাস্থ্যকন্ঠ ডেক্সঃ    বিশ্বসাস্থ্য পরিক্রমায় রয়েছে ক্যান্সারের সেরা চিকিৎসা অপারেশন, কেম থেরাপি ও রেডিও থেরাপি। তবে শরীরের কিছু অঙ্গ আছে, যা আক্রান্ত হলে অপারেশনের সুযোগ সীমিত। যেমন- মস্তিষ্ক, ফুসফুস, মেরুদণ্ড, লিভার, অগ্ন্যাশয়। এসব অঙ্গ ক্যান্সারে আক্রান্ত হলে ‘ভেরিয়ান এজ রেডিও –সার্জারি’র মাধ্যমে চিকিৎসা করে নিরাময় সম্ভব বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।
তারা বলেছেন, রেডিও থেরাপি হচ্ছে- দীর্ঘ দিন ধরে স্বল্পমাত্রার তেজস্ক্রিয়তা প্রয়োগ করে ক্যান্সার চিকিৎসা। যা সাধারণত চার থেকে ছয় সপ্তাহ স্থায়ী হয়। আর অল্প সময়ে উচ্চমাত্রার তেজস্ক্রিয়তা প্রয়োগ করে অতি দ্রুত ছড়িয়ে পড়া ক্যান্সার সেলগুলোকে দ্রুত ধ্বংস করার বিশেষ প্রক্রিয়া হচ্ছে রেডিও সার্জারি। এর লক্ষ্য হচ্ছে ক্যান্সার আক্রান্ত কোষগুলোকে সার্জারি বা অস্ত্রোপচারের মতো মাত্র এক থেকে সর্বোচ্চ পাঁচবার উচ্চমাত্রার তেজস্ক্রিয়তা প্রয়োগ করে অপসারণ করা। এক্ষেত্রে আক্রান্ত কোষগুলো ছাড়া শরীরের সুস্থ কোষগুলোর যাতে ক্ষতি না হয় সেদিকে বিশেষভাবে লক্ষ্য রাখা হয়।
চিকিৎসকরা জানান, স্টেরিওটেকটিক রেডিও সার্জারি (SRS) আগে বিশেষ করে ব্রেইন টিউমার চিকিৎসার জন্যে ব্যবহৃত হত। আগামী ১০ বছরে ব্রেইন টিউমারে এই চিকিৎসা পদ্ধতির ব্যবহার সারা বিশ্বে ১০৮ শতাংশ বাড়বে বলে ধারণা  করা হচ্ছে। এছাড়া আগামীতে স্টেরিওটেকটিক বডি রেডিয়েশন থেরাপির (SBRT) মাধ্যমে শরীরের বিভিন্ন অংশের ক্যান্সার/টিউমার নিরাময়ের হারও বাড়বে। ধারণা করা হচ্ছে- আগামী ১০ বছরে SBRT- এর প্রয়োগ ১৪৪ শতাংশ বাড়বে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ভেরিয়ান এজ রেডিও সার্জারির মাধ্যমে চিকিৎসা সেবার ব্যবস্থা বর্তমানে বিশ্বের অল্প কয়েকটি সর্বাধুনিক ক্যান্সার চিকিৎসা কেন্দ্রে রয়েছে। বাংলাদেশের কাছাকাছি দেশ গুলোর মধ্যে শুধু থাইল্যান্ডের ব্যাংকক ওয়াতানসথ হাসপাতাল ছাড়া আর কোনও হাসপাতালে সর্বাধুনিক এই ক্যান্সার চিকিৎসা নেই। ব্যাংকক হাসপাতালে সর্বশেষ সংযোজন এই ভেরিয়ান এজ মেডিকেল সিস্টেমস।
ওই হাসপাতালের বাংলাদেশ অফিসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. নীলাঞ্জন সেন "দৈনিক ভোরের কন্ঠ ডটকমের"সম্পাদক শাহ মুহাঃ সুমন রশিদকে জানান মস্তিষ্কের (ব্রেইন) অনেক অংশে ছড়িয়ে পড়া ক্যান্সার (মাল্টিপল-মেটাসটাসিস), অ্যাকিউসটিক নিউরোমা, ট্রাইজেমিনাল নিউরালজিয়া, গ্লোমাস জুগুলারি, শিরদাঁড়ায় ছড়িয়ে পড়া ক্যান্সার (স্পাইন মেটাসটাসিস), ফুসফুসের নন-স্মল-সেল ক্যান্সার- স্টেজ-১, হেপটোসেলুলার কার্সিনোমা বা লিভার ক্যান্সার, প্রোস্টেট এডেনোকার্সিনোমা ও অগ্ন্যাশয়ের ক্যান্সার- ভেরিয়ান এজ রেডিও সার্জারির মাধ্যমে চিকিৎসা করা সম্ভব। যদি শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে ক্যান্সার আক্রান্ত টিস্যু থাকে তবে একসাথে সব স্থানের চিকিৎসাও এই প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে করা সম্ভব।
তিনি বলেন, আধুনিক চিকিৎসায় স্টেরিওটেকটিক রেডিও সার্জারি এবং স্টেরিওটেকটিক বডি রেডিয়েশন থেরাপি দ্রুত জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।
চিকিৎসকরা বলছেন, এটি সার্জিক্যাল-ইনসিশান বা রক্তপাতবিহীন অপারেশন। দ্রুততম সময়ে গতানুগতিক অপারেশন না করে ক্ষতিকর টিস্যু অপসারণের এক আধুনিক চিকিৎসা পদ্ধতি।

No comments

Powered by Blogger.