সুন্দরবনে বনদস্যুর হাত থেকে মুক্তি ১৩ জেলে




এস.এম. সাইফুল ইসলাম কবির,   সুন্দরবন থেকে ফিরে :
সুন্দরবনে বনদস্যুদের হাতে আটক ১৩ জেলে মুক্তি পেয়ে পালিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছেন। কোষ্টগার্ডের একটি টহল দলের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাতরা জেলেদেরকে ছেড়ে পালিয়ে যায়। রবিবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে জেলেরা অপর একটি নৌকায় করে রায়েন্দা বাজারে পৌছে।


এরা হচ্ছেন, মোরেলগঞ্জের আমবাড়িয়া গ্রামের দিপক মন্ডল, কয়রা উপজেলার নজরুল ইসলাম সরদার, মাওলা গাজী, আব্দুল কাদের, হারুন সরদার, মাহমুদ ঢালী, হারুণ গাজী, রাজ্জাক সরদার, মোশারেফ ওরফে ভোলা বিশ্বাস, আব্দুল্লাহ্ গাজী, মফিজুল মুন্সি, ইকবাল হোসেন ও দাকোপ উপজেলার হাসান মালঙ্গী।


জেলেরা বলেন, গত বৃহস্পতিবার সুপতি ষ্টেশন থেকে পাশ নিয়ে তারা কটকার চাপড়াখালী এলাকায় যায়। রাতে তারা বালিরখালে ঢুকলে ডাকাত দল ৫টি নৌকা ও একটি ট্রলারসহ জেলেদেরকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে বনের মধ্যে নিয়ে হাত-পা বেধে মারপিট করে। কেড়ে নেয় নগদ টাকা, নৌকা ও ট্রলার। পরে জেলেদের মোবাইল ফোন থেকে তাদের মালিক মোরেলগঞ্জের কেএম জাহাঙ্গীর হোসেন মেম্বরের কাছে ৩ লাখ টাকা মুক্তিপন দাবি করে। এক পর্যায়ে ৬০ হাজার টাকায় ছেড়ে দিতে রাজি হয় ডাকাতরা।


কিন্তু এরই মধ্যে ওই বালিরচর খালে কোষ্টগার্ডের একটি টহল দল ঢুকে পড়লে ডাকাতদল পালিয়ে যায়। পরে জেলেরা অপর একটি নৌকায় রায়েন্দা বাজারে পৌছান। এদের মধ্যে গুরুতর আহত জেলে দিপক মন্ডলকে মোরেলগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।


এ সম্পর্কে জাহাঙ্গীর মেম্বর  বলেন, কোষ্টগার্ডের পরামর্শ অনুযায়ী শরণখোলা থানায় রবিবার রাতে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা নং-১২। মামলায় ৩ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। অজ্ঞাত আছে ২-৩জন।

No comments

Powered by Blogger.