সোনারগাঁয়ে মাদ্রাসার বড়হুজুর কর্তৃক ১ম শ্রেণীর ১২ শিশু বলাৎকার, এক জনের অবস্থা আশংকাজনক

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধিঃ 
নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁ উপজেলার সাদিপুর ইউনিয়নের সাদিপুর গ্রামের তাফহীমুল উম্মাহ আইডিয়াল মাদ্রাসার মহতামিম ( বড় হুজুর) ১ম শ্রেণীর ১২ ছাত্রকে বলাৎকার করেন তর মধ্যে এক জনের অবস্থা আশংকাজনক তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতলে ভর্তি করা হয়েছে।
জানাগেছে গত ৩ মাস পূর্ব থেকে মহতামিম মোল্লাহ কালাম বিভিন্ন ছাত্রের উপর এমন নির্যাতন করে আসছে। এই ব্যাপারে গত ০২-০৫-২০১৮ ইং বুধবার এক নির্যাতিত শিশুটির বাবা বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। নির্যাতিত শিশুর বাবা মো: আব্দুল্লা বলেন আমার ছেলে মো: জিসান এই মাদ্রাসার ১ম শ্রেণীর ছাত্র, আমি বেশ কয়েক দিন যাবত দেখছি জিসান বমি করে আসছে, সময় মত খাবার খায় না ,কমর ব্যাথা করে ,পায়ুপথ ব্যাথা করে ইত্যাদি নানা সমস্যায় ভোগছে। আমি জানতে চাইলে প্রথমত সে কিছুই বলতে চায়নি। পরে একজ ডাক্তারে কাছে নিয়ে গেলে আমাকে এইরকম ধারনা দিলে আমি ওকে ভালোভাবে জিজ্ঞাসা করি পরে ছেলে আমাকে খুলে বলে।পরে আমি স্থানীয় লোকজনের কাছে জানালে আরো কয়েকটি ছেলে একই ঘটনা শিকার হয়েছে বলে জানতে পাই। তিনি আরও বলেন অভিযোগের ছয় দিন পার হয়েছে কিন্তু পুলিশ কোন ব্যাবস্থা নেয়নি
 সরেজমিনে গিয়ে জানা যায় ,তাদের মধ্যে এক জন কাইউম (১০)পিতা শহিদ। মাহিন (১০) পিতা মোসারফ । বাকি ৯ জনের নাম প্রকাশ করতে রাজি হয়নি তাদের পরিবার। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ৩০-০৪-২০১৮ইং তারিখে লোকমুখে শুনে মোল্লাহ আবুল কালাম কে ধরে নিয়ে যায় তালতলা পুলিশ ফাড়ির এ এস আই সফি, পরে তাকে রাত শেষে আবার ছেরে দেওয়া হয়। স্থানীয় কয়েক জন লোক বলেন ইনচার্জ তাকে বেশকিছু টাকা নিয়ে ছেড়ে দিয়েছে।
এইব্যাপরে তলতলা পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক মো: আহাসানউল্লাহ্ সাংবাদিক দের জানায় আমরা লোকমুখে শুনে মাওলানা আবুল কালামকে ডেকে আনি এবং জিসানের বাবা আব্দুল্লাহ্ কে ডেকেআনি সে আমাদের কাছে কোনরকম লিখিত অভিযোগ না দিলে আমরা তাকে ছেড়ে দেই।

No comments

Powered by Blogger.