গৌরনদীর বাটাজোড়ে স্কুল ছাত্রীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা ॥ মামলা দায়ের

খোকন হাওলাদারঃ
 স্কুলে আসার পথে বুধবার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে নবম শ্রেনীতে পড়ুয়া এক স্কুল ছাত্রীর পথরোধ করে দুই বখাটে মুখ চেঁপে জোরপূর্বক টেনে হেঁচরে পাশ্ববর্তী একটি নির্জন ঘরে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়ে শ্লীলতাহানি করেছে। এ ঘটনায় ওইদিন দুপুরে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। ঘটনাটি ঘটেছে জেলার গৌরনদী উপজেলার বাটাজোর ইউনিয়নের লক্ষনকাঠী গ্রামে।

বাটাজোর অশ্বিনী কুমার ইনষ্টিটিউশনের নবম শ্রেনীতে পড়ুয়া ছাত্রী ও ঘেয়াঘাট গ্রামের বাবুল আকনের কন্যা জানায়, স্কুলে আসা যাওয়ার পথে দীর্ঘদিন থেকে তাকে বিভিন্ন ধরনের যৌন হয়রানী করে আসছিলো লক্ষনকাঠী গ্রামের জনৈক মাসুমের বখাটে পুত্র মিজানুর রহমান। বিষয়টি সে তার অভিভাবকদের জানালে বখাটেদের শ্বাসিয়ে দেয়া হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বুধবার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে ওই ছাত্রী স্কুলে আসার পথে লক্ষনকাঠী গ্রামের সাগর মিয়ার বাড়ির সন্নিকটে পৌঁছলে বখাটে মিজানুর রহমান ও তার সহযোগী একই গ্রামের বাচ্চু মিয়ার বখাটে পুত্র শরিফুল ইসলাম তার (ছাত্রীর) পথরোধ করে। একপর্যায়ে ওই ছাত্রীর মুখ চেঁপে ধরে জোরপূর্বক টেনে হেঁচরে পাশ্ববর্তী সাগর মিয়ার নির্জন ঘরে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালিয়ে শ্লীলতাহানি করে। এসময় কৌশলে ওই ছাত্রী চিৎকার দিয়ে বখাটেদের হাত থেকে নিজেকে রক্ষা করেছেন।

এ ঘটনায় ছাত্রীর পিতা বাবুল আকন বাদি হয়ে ওই দুই বখাটেকে অভিযুক্ত করে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। গৌরনদী মডেল থানার এসআই মোঃ আলমগীর হোসেন অভিযোগপ্রাপ্তির সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বখাটেদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশের অভিযান চলছে।

No comments

Powered by Blogger.